বৃহস্পতিবার, ১৩ মে ২০২১, ০৫:২৭ পূর্বাহ্ন

স্বামী-স্ত্রীর অন্তরঙ্গ ছবি প্রকাশের ভয় দেখিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ

admin
  • আপডেট টাইম : রবিবার ২৭ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ২৬৮ বার পঠিত

নোয়াখালী প্রতিনিধি : নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে স্বামী-স্ত্রীর অন্তরঙ্গ ছবি ইন্টারনেটে প্রকাশের ভয় দেখিয়ে গৃহবধূকে একাধিকবার ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে রাকিবুল হাসান রাকিব নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে। শনিবার (২৬ ডিসেম্বর) ওই গৃহবধূ রাকিব ও তার মাসহ তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। এ ঘটনায় রাকিবের মা রুনা বেগমকে গ্রেপ্তার করেছে কোম্পানীগঞ্জ থানা পুলিশ।

থানায় দায়েরকৃত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, চার বছর আগে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার চরফকিরা ৫ নং ওয়ার্ডের এক যুবকের সঙ্গে ওই নারীর বিয়ে হয়। তাদের সন্তানের জন্ম হওয়ার পর বিদেশে চলে যান গৃহবধূর স্বামী। অভিযুক্ত রাকিব ওই গৃহবধূর ভাসুরের ছেলে। তাদের ঘরে আসা-যাওয়ার কোন একসময় গৃহবধূর অজান্তে তার ব্যবহৃত মোবাইল থেকে তাদের স্বামী-স্ত্রীর কিছু অন্তরঙ্গ ছবি নিজের মোবাইলে নিয়ে যায় রাকিব।

পরবর্তীতে ওই ছবিগুলো ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে একাধিকবার ওই গৃহবধূকে ধর্ষণ করে রাকিব। পরে ওই গৃহবধূ ঘটনাটি রাকিবের বাবা-মাকে জানিয়ে কোন প্রতিকার পাননি বরং উল্টো তারা তাকে অশ্লীল ভাষায় গালমন্দ করেন। নিজের সংসার ভেঙে যাওয়ার ভয়ে প্রবাসী স্বামীকেও এ বিষয়ে কিছুই জানাননি ওই গৃহবধূ। এরই মধ্যে গত ২২ ডিসেম্বর বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ওই গৃহবধূর ঘরে আসে রাকিব। এসময় রাকিব তার শিশু বাচ্চাকে পানিতে ফেলে হত্যার হুমকি ও ছবিগুলো আজই ইন্টারনেটে ছেড়ে দেবে বলে জোর করে আবারও তাকে ধর্ষণ করে। একইদিন সন্ধ্যায় কৌশলে আবারও ঘরে ঢুকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায় রাকিব। তখন ধস্তাধস্তির শব্দ পেয়ে পাশের কক্ষ থেকে পরিবারের লোকজন এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে। এসময় পালিয়ে গিয়ে আত্মগোপন করে রাকিব।

এদিকে ওই গৃহবধূর শারীরিক অবস্থা খারাপ হলে তার বাবার বাড়ির লোকজনের সহযোগিতায় ২৪ ডিসেম্বর তাকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর জাহিদুল হক রনি বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ওই গৃহবধূর করা মামলার ৩ নং আসামিকে গ্রেপ্তার করে শনিবার বিকালে আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্ত রাকিবকে গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান চলছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


এ জাতীয় আরো খবর..